বিডিএস পেশাগত পরীক্ষায় ঢাকা ডেন্টাল কলেজের শিক্ষার্থীদের অভাবনীয় সাফল্য

ঢাকা ডেন্টাল কলেজ, বাংলাদেশের একমাত্র সরকারী ডেন্টাল কলেজ। অনেকে বলেন ডেন্টিস্ট্রির মাতৃপ্রতিষ্ঠান। এই বিদ্যাপীঠ থেকে বের হয়ে আজ বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ডেন্টাল সার্জনবৃন্দ। এই বিদ্যাপীঠ এর বর্তমান অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হুমায়ূন কবীর বুলবুল।

অন্যান্য বছরগুলোর পাশাপাশি এবার ঢাকা ডেন্টাল কলেজের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা পেশাগত পরীক্ষায় অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছেন। তৃতীয় পেশাগত পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছেন ৯৬ জন শিক্ষার্থী। উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬২ জন শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ম স্থান অধিকার করেছেন নাফিসা আফরোজ এবং ৮ম স্থান অর্জন করেছেন সিদরাতুল মুনতাহা স্বর্ণা।

২য় পেশাগত পরীক্ষায় ১২২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছিলেন এবং ৯৬ জন উর্ত্তীণ হয়েছেন। ২য় পেশাগত পরীক্ষায় ৭ জন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধা তালিকায় স্থান অর্জন করেছেন। এর মধ্যে ১ম স্থান অর্জন করেছেন ইকরা মানজুর, ২য় স্থান অর্জন করেছেন বৈশাখ দাস ত্রাপা, ৩য় স্থান অর্জন করেছেন রাইসা নুজহাত সর্দার, ৪র্থ স্থান অর্জন করেছেন মোঃ আল আমিন, ৭ম স্থান অর্জন করেছেন যৌথভাবে মোঃ সামি এবং মোসাঃ তাজকিয়া জামান শোভা এবং ৯ম স্থান অর্জন করেছেন ফারহিন কবীর চৈতী। এছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে অর্নাস নাম্বার পেয়েছেন ১২ জন।

শেষ বর্ষের পেশাগত পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছেন ১১১ জন এবং ৯১ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধা তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন ৬ জন। এর মধ্যে ১ম হয়েছেন ডাঃ বৃষ্টি আচর্য, ২য় হয়েছেন ডাঃ আশরাফুন মুনতাহা, ৫ম হয়েছেন ডাঃ সেহরাতুম রুমাইয়া জেমিমা, ৬ষ্ঠ হয়েছেন ডাঃ মায়মুনা নাসরিন, ৭ম হয়েছেন ডাঃ সাগর লামসাল, ৯ম হয়েছেন ডাঃ রুবাইয়া আক্তার । এছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে ৩ জন অনার্স নাম্বার পেয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের এমন অভাবনীয় সাফল্যে কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ হুমায়ূন কবীর বুলবুল ডেন্টাল টাইমসকে বলেন – “ কলেজ থেকে যারা ভাল ফলাফল করেছে আমরা তাদের সকলকে কলেজ থেকে উৎসাহিত করেছি, অভিনন্দন জানিয়েছি। কিন্তু তারপরেও আমি মনে করি আগামী দিনে আমাদের এই কলেজ আরো ভাল ফলাফল করবে।” বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানসহ অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রশংসা করে তিনি বলেন- “ আমাদের অভিজ্ঞ শিক্ষক-মন্ডলী প্রচন্ড গুরুত্বসহকারে শিক্ষার্থীদের যত্ন নিয়েছেন এবং পড়িয়েছেন। ” এছাড়াও তিনি বলেন –“বিগত অক্টোবর থেকে কলেজে শিক্ষার যে পরিবেশ তৈরী হয়েছে, তারই ফলশ্রুতীতে আজকের এই ফলাফল। সুতরাং, ছাত্র-ছাত্রীরা ও পড়াশুনার পরিবেশ পেলে যে একটা ভাল ফলাফল করতে পারে এটা প্রমাণ করে দেখিয়েছে। এই ফলাফল এর ধারা বজায় থাকুক এবং উত্তোরোত্তর আরো ভাল হোক এই লক্ষ্যকে সামনে নিয়ে আমাদের শিক্ষক-শিক্ষীকারা আরো সচেষ্ট আছেন।”

Leave a Reply